রবিবার, ১০ মে, ২০১৫

Belief (বিশ্বাস)



 বিশ্বাস

☆তোমার প্রতি মানুষের বিশ্বাস তত দিন পর্যন্তই থাকবে,যতদিন পর্যন্ত তুমি সেটা বজায় রাখতে মন থেকে চাইবে।তুমি যদি অন্তর থেকে এটা না চাও তবে কোনভাবেই তুমি "বিশ্বাস" নামক মুল্যবান সম্পদটাকে ধরে রাখতে পারবে না।

    "বিশ্বাস"!বিশ্বাস শব্দটি তোমার কাছে সাধারন একটা শব্দ মনে হলেও;আমি অন্তর থেকে বলছি, এটা আমার কাছে শুধুই শব্দ নয়।বরং এটা একটা শব্দের থেকে অনেক বেশি কিছু। তুমি বিশ্বাস কর, আমার মনে হয়, পৃথিবী তথা মহাবিশ্ব টিকে আছে এই "বিশ্বাস" এর উপর।

    মনে কর,তুমি একটা গাছে চড়তে চাও।গাছে উঠার উপায়ের কথা চিন্তা করতে গিয়ে তুমি রশি, মই,বা শুধু বেয়ে উঠার কথা ভাবলে।যখন রশির কথা ভাবলে, তখন মনে হল রশি যে কোন মুহূর্তে ছিড়ে যেতে পারে।যখন শুধুই বেয়ে উঠার কথা ভাবলে, তখন মনে হল তুমি হাত বা পা ফসকে সহজেই পড়ে যেতে পার।এর মধ্য থেকে তুমি মই বেয়ে উঠাকে সবচেয়ে  সহজ ও সুন্দর বলে মনে করলে ও সেটা দিয়েই তুমি গাছে ছড়লে।বলতো তুমি কেন রশি বা শুধু বেয়ে ওঠাকে গাছে ছড়ার মাধ্যম হিসেবে নিলে না?!!কারন তাদের একটার উপরও তোমার পুরোপুরি  বিশ্বাস ছিল না।কিন্তু মইয়ের উপর তোমার বিশ্বাস  পুরোপুরি  ছিল যে,সে তোমার ভার বহন করতে পারবে তথা বহন করবে।তাই নয় কী?!!এখানে "বিশ্বাস "শব্দের সাথে আরও একটা গুরুত্বপূর্ণ শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে ;আর তা হলো "ভার"।অর্থাৎ "বিশ্বাস "এর সাথে "ভার" এর একটা সম্পর্ক রয়েছে।

    আমরা তাকেই বিশ্বাস করি, যে আমাদের "ভার" বহন করতে পারে বা পারবে বলে মনে হয়।হোক সেটা মানসিক ভার বা শারীরিক। অর্থাৎ ভার বহন করার ক্ষমতার উপরও নির্ভর করে বিশ্বাস!

     আর ভালোবাসার মূলে রয়েছে এই"বিশ্বাস "।আমরা তাকেই ভালোবাসি, যাকে আমাদের কাছে মনে হয়, সে আমাদের ভার বহন করবে বা করতে পারবে।এটা ভরের ভার নয় বরং এটা হলো আমাদের সম্যসার চাপ বহন করার ক্ষমতা!

 Biddut Kumar