শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

গো-বক

-শরীফ খান
       একটানা মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে, একটি মহিষ খালপাড়ে দাঁড়িয়ে ভিজছে চুপচাপ।

অসহায়ভাবে বৃষ্টিতে ভিজতে থাকা মহিষটির পিঠে এক সারিতে দাঁড়িয়ে পাঁচটি বকও ভিজছে চুপচাপ। স্থির মহিষ ও বক। দৃশ্যটি দারুণ!


এই বকগুলো হলো আমাদের অনেকের চেনা পাখি গো-বক। গাই বগলা নামেও পরিচিত এরা। চালচলনে গোবেচারা ধরনের লাগলেও দুঃসাহসী, লড়াকু ও মেজাজি। সতর্ক, চতুর ও কুশলীও বটে। ইংরেজি নাম Cattle Egret। বৈজ্ঞানিক নাম Bubulcus ibis। দৈর্ঘ্য ৫০ সেন্টিমিটার। ওজন ৪৬০ গ্রাম। মাটির ওপর বা ঘাসবনের ভেতর দিয়ে যেমন মার্চ করতে পারে, তেমনি উড়ন্ত পোকা-পতঙ্গকে লাফ দিয়ে শূন্য থেকে পেড়ে ফেলতে পারে অ্যাক্রোব্যাটদের কৌশলে। মূল খাদ্য এদের পোকামাকড়, গিরগিটি, ব্যাঙ, টিকটিকি; গরু-মহিষ-ভেড়া-ছাগলের শরীরের পরজীবী পোকা-কীটসহ আটালি ও ডাঁশ মাছি। জোঁক এরা খায় না। তবে গবাদিপশুর নাকের ভেতরে, খুরের ফাঁকে, তলপেটে জোঁক লাগলে সেগুলো এরা টেনে বের করে ফেলে শালিকদের মতো। নাকের ভেতরে জোঁক ঢুকলে গবাদিপশু ‘হ্যাঁচ্চো’ দিতে থাকে। শালিক ও গো-বকেরা আসে। পশুটি মুখ নামিয়ে দেয়। নাকের ভেতরে ঠোঁট ঢুকিয়ে দিয়ে বের করে আনে জোঁক। জোঁকেরাও অতি বুদ্ধিমান। গবাদিপশুর এমন সব জায়গায় লাগে, যেখানে পশুটি জিভ দিয়ে চাটতে পারবে না, চাটা দিলে জোঁকের বাবারও সাধ্য নেই লেগে থাকে। গো-বক তাই গবাদিপশুর পরম বন্ধু। গবাদিপশু কাত হয়ে শুয়ে আছে, গো-বক কানের ভেতরের বা শিংয়ের গোড়ার আটালি বের করে খাচ্ছে—বাংলায় আজও এটি সাধারণ দৃশ্য। গবাদিপশু ঘাসবনে চরছে, নড়ছে ঝোপঝাড়, উড়ছে পোকামাকড়, খাচ্ছে গো-বকেরা। এটিও চিরচেনা দৃশ্য। এমনিতেও গো-বকেরা ঘাসবনে পাশাপাশি দলবেঁধে হাঁটে, নিজেরাই পা ও পাখা দিয়ে ঝোপঝাড়-ঘাস নাড়ায়, পোকামাকড় বের হলেই পাকড়াও করে। ঘাসবনের ওপর দিয়ে উড়তে উড়তে এরা দুই পাখার বাতাস ঢেলে পোকামাকড় বের করার কৌশল জানে। শুধু পোষা প্রাণী নয়, বুনো শূকর, হরিণ, হাতি ইত্যাদির সঙ্গে একই কারণে বন্ধুত্ব গো-বকের। এরা দিবাচর। তবে প্রয়োজনে নিশাচর হতে পারে।

প্রজনন মৌসুমে গো-বকের ঠোঁট-মাথা-ঘাড়-বুক সোনালি-হলুদ হয়, ঘাড়-গলা-পিঠ-বুকে সুতা পালক গজায়। যেন সোনার সুতা। এমনিতে এদের রং বরফসাদা।

বাসা করে গাছের ডালে। কলোনি বাসা। ডিম দেয় তিন থেকে পাঁচটি। দুজনেই তা দেয়। ডিম ফোটে ২০ থেকে ২৫ দিনে। ঢাকা শহরেও বাসা করে।

source:প্রথম আলো

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন